fbpx
Home / Uncategorized / এ সময় সুস্থ থাকতে ডায়াবেটিস রোগীরা যা করবেন

এ সময় সুস্থ থাকতে ডায়াবেটিস রোগীরা যা করবেন

পৃথিবী করোনাভাইরাসের আতঙ্কে জর্জরিত। ভ্যাকসিন আবিষ্কারের জন্য মরিয়া বিজ্ঞানীরা। চেষ্টার ত্রুটি রাখছেন না চিকিৎসক থেকে শুরু করে স্বাস্থ্যকর্মীরা। সবাই যার যার জায়গা থেকে এ মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন।স্বাস্থ্য ও জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশেষজ্ঞদের মতে, কোমর্বিডিটি যুক্ত রোগীরা এ ভাইরাসের সংক্রমণের ক্ষেত্রে ঝুঁকিতে রয়েছেন। এর মধ্যে একটি মধুমেহ বা ডায়াবেটিস।

চিকিৎসকদের মতে, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে না থাকলে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়ার পাশাপাশি বেড়ে যায় রোগের জটিলতাও। সুতরাং আপনি যদি ডায়াবেটিস দ্বারা আক্রান্ত হয়ে থাকেন তবে সাবধান হোন। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে মেনে চলুন এই নিয়মগুলো—

১. মাস্ক ব্যবহার, হাত ধোওয়া, শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ইত্যাদি কোভিডের সুরক্ষাবিধি মেনে চলুন।

২. চেষ্টা করুন বাড়ির বাইরে এ সময় না বের হতে। বাড়ির কাজ সুস্থ সদস্যদের দিয়ে করান।

৩. বাইরে বেরোলে তিন স্তরযুক্ত মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। মেনে চলতে হবে সামাজিক দূরত্ব এবং বাড়ি ফিরলে সঙ্গে সঙ্গে ভালো করে হাত-পা-মুখ সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। পরিহিত কাপড়গুলো পরিবর্তন করে সাবান পানিতে কেচে নিতে হবে।

৪. ডায়াবেটিক কিটো-অ্যাসিডোসিস বা DKA নামের সমস্যা হলে অনেক সময় শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। এক্ষেত্রে করোনা লক্ষণের সঙ্গে গুলিয়ে না ফেলে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুন। কারণ, DKA জটিল সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে।

৫. ধূমপান করা চলবে না। পাশাপাশি মদ্যপানও বন্ধ রাখুন। এগুলোতে রোগের জটিলতা আরো বৃদ্ধি পায় এবং করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

৬. অন্যান্য দিনের মতোই রুটিন মেনে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ডায়াবেটিসের ওষুধ খেতে থাকুন। ওষুধ খাওয়ার ক্ষেত্রে অবহেলা করবেন না। অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে ওষুধ খাবেন।

৭. প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। কারণ সুগারের ওষুধ খাওয়ার পর পানি বেশি পরিমাণে না খেলে সমস্যা দেখা দেয়।

৮. সকাল-সন্ধ্যা ব্যায়াম করুন, এতে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি সুগারের মাত্রাও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

৯. সুগার হঠাৎ বেড়ে গেলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

১০. করোনাকে নিয়ে ভয় না করে নিজেকে চিন্তামুক্ত রাখুন। এতে আপনি আরো সুস্থ থাকবেন। সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

১১. বাড়িতে কোনো অসুস্থ ব্যক্তি থাকলে তার থেকে নিজেকে দূরে রাখুন।

কোভিডের উপসর্গ দেখা দিলে যা করবেন

১. করোনার সামান্য উপসর্গ দেখা দিলে অবিলম্বে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

২. ভয় না পেয়ে, কোভিডের টেস্ট না হওয়া পর্যন্ত চিকিৎসকের নির্দেশ অনুযায়ী নিজেকে আলাদা ঘরে বন্দি রাখুন।

৩. আইসোলেশনে থাকার সময় ডাক্তারের পরামর্শ মেনে ডায়াবেটিসের ওষুধ খান। করোনার ভয়ে ওষুধ খাওয়া বন্ধ করবেন না, এতে বিপদ বাড়তে পারে।

৪. করোনা চিকিৎসা চলাকালে ডায়াবেটিসের কোন কোন ওষুধ আপনি খেয়েছেন তা চিকিৎসককে জানিয়ে দেবেন। এতে আপনার চিকিৎসার ক্ষেত্রে আরো সুবিধা হবে।

About oneworld

Check Also

মা-বাবার রক্তের গ্রুপ একই হলে সন্তান জন্মে কোনো সমস্যা হয় কী?

প্রশ্ন: মা-বাবার রক্তের গ্রুপ একই হলে সন্তান জন্মে কোনো সমস্যা হয় কী? উত্তর: অনেকেরই ধারণা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *